প্রকাশিত: এপ্রিল ৩০, ২০১২

Email this to a friendইমেইল করুন ইমেইল করুন                      Printable versionপ্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

কুড়িগ্রামে হরতালের ২য় দিনে বিএনপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা

কুড়িগ্রামে হরতালের ২য় দিনে বিএনপির মিছিলে পুলিশের বাঁধা thumbnail

স্টাফ রিপোর্টার:
এম ইলিয়াস আলীকে ফেরত প্রদানের দাবীতে ডাকা হরতালের ২য় দিনে কুড়িগ্রামে পুলিশী বাঁধার মুখে বিএনপি মিছিল করতে না পারলেও সমাবেশ করেছে। হরতাল কে কেন্দ্র করে সোমবার সকাল থেকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ বিএনপি কার্যালয় সহ গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে অবস্থান নেয়। পুলিশের বেশ কয়েকটি ভ্রাম্যমান মোবাইল টিম, স্ট্রাইকিং র্ফোস মাঠে অন্যদিনের তুলনায় বেশ তৎপর ছিল।

হরতালের সমর্থনে সোমবার সকালে বিএনপি শহরের ঘোষপাড়া থেকে একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি শহীদ জিয়া বাজার এলাকায় পৌঁছিলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময়  পুলিশ চারদিক থেকে অবরোধ করে রাখে। সেখানেই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আবুবকর ছিদ্দিকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি’র সহসভাপতি অধ্যাপক শফিকুল ইসলাম বেবু, যুগ্ন সম্পাদক অধ্যাপক হাসিবুর রহমান হাসিব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এ্যাডভোকেট আশরাফ আলী, পৌর বিএনপি’র সাংগাঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ বাবু, সহসভাপতি অধ্যাপক আবুল কালাম, জেলা যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি শাহীন শেখ রনজু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের অহবায়ক শাহানুর আশরাফ জুয়েল, যুবদলনেতা এ্যাডভোকেট শাহীন, কুড়িগ্রাম সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

অপরদিকে  পোস্ট অফিসের সামনে থেকে জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ সোহেলের নেতৃত্ব  একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হলে পুলিশ মিছিলে বাঁধা দিলে জাহাজ ঘরের সামনে জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি, সহিরুজ্জামান সাজুর সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, দফতর সম্পাদক আশরাফুল হক রুবেল, থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জহুরুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হোসেন, জেলা বিএনপির সদস্য আজিজার রহমান মন্টু, রায়হান কবির, কৃষকদলের আহবায়ক রফিকুল ইসলাম, জেলা যুবদলের নেতা নাদিম আহমেদ, সাজ্জাদ চৌধুরী ব্রাইট, মাসুদ রানা মাসুদ, ওয়াজেদ আলী ঝিনুক, জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর বিপ্লব, যুগ্ম আহবায়ক মোর্শেদ হোসেন লিটু, হোসাইন আহমেদ হিজল, ওয়াহেদ রানা, আমিমুল ইহসান প্রমূখ ।

হরতাল চলাকালে শহরের অধিকাংশ দোকান পাট বন্ধ ছিল, হাতেগোনা হালকা যানবাহন রিক্সা, অটোরিক্সা, ভ্যান চলাচল করলেও দূরপালার যানবাহন বাস ট্রাক চলাচল করতে দেখা যায়নি। শহরের মোড়ে মোড়ে দাঙ্গা পুলিশ টহল দিয়েছে। ব্যাংক বীমা অফিস আদালতে উপস্থিতি ছিল অনেক কম।

বক্তারা হরতালের দিন সোমবার সকালে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের বাসায় পুলিশি তল্লাশির নিন্দা সহ অবিলম্বে ইলিয়াস আলীকে ফেরত প্রদানের দাবি জানান। তারা আরও বলেন,সচিবালয়ের মত সুরক্ষিত জায়গায় সরকারের এজেন্টরা বোমাবাজি করে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপির নেতাদের ধরপাকড় কওে আন্দোলন দমন করার পায়তারা করছে।








সংবাদ শিরোনাম



ফটো এ্যালবাম


ভিডিও